শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষার শ্রেষ্ঠ শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীর পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান



Pic-- MB
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ।।
মৌলভীবাজারের মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম ৪র্থ পর্যায় শীর্ষক প্রকল্পের ২০১৪ শিক্ষাবর্ষের নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের পুরষ্কার বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (৮ জুলাই) সকাল ১১টায় মৌলভীবাজার পৌর জনমিলন কেন্দ্রে সহকারী পরিচালক শ্যামল কুমার চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান। ফিল্ড

Pic-- MB-1সুপারভাইজার মোঃ আব্দুল লতিফ ও মোঃ আজিজুল হকের যৌথ উপস্থাপনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্টের ট্রাষ্টি রাখাল চন্দ্র ঘোষ, মৌলভীবাজার জেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি এডভোকেট কিশোরী পদ দেব শ্যামল, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ জসিম উদ্দিন মাসুক, মৌলভীবাজার জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পংকজ রায় মুন্না।

DSC05622
অনুষ্ঠানে ৫জন শ্রেষ্ট শিক্ষিকা ও ১২জন শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থীকে পুরষ্কার প্রদান করেন অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান বলেন, পৃথিবীর সকল ধর্ম বাণী হচ্ছে এক। সবাই বাণী অনুযায়ী সে পথ অনুসরণ করে চলাফেরা করি। সকল ধর্মই সৎ পথে চলার জন্য বলা হয়েছে।  তিনি বলেন, মাঝে মাঝে ধর্মীয় নিয়ে কেউ কেউ অপব্যাখা করে এজন্য অনেক স্থানে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। তা থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। কারণ যত মত তত পথ। ঈশ্বর এক ও অদ্বিতীয়। তিনি বলেন,  মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করতে সকল শিক্ষক- শিক্ষিকাদের একযোগে কাজ করতে হবে। শিশুদের সঠিকভাবে জ্ঞান দিতে হবে। শিশুদের শুধু

Pic-- MB-2পাঠ্যপুস্তকের বই পড়ালে হবে না তাদের নৈতিক শিক্ষা দিতে হবে। ছোট কাল থেকে যদি ধর্মীয় আচার আচরণ, বড়দের সম্মান না করে তাহলে ভবিষ্যতে সে ভালো হতে পারবেনা। কারণ আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ।

DSC05624
পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শেষে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষার মাষ্টার ট্রেইনার শিশির কুমার। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে মৌলভীবাজার ৭টি উপজেলার সকল শিক্ষক ও শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন।