শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ঝড়, লাইনে ত্রুটি, জনবল স্বল্পতায়- কমলগঞ্জে বার বার দীর্ঘ বিদ্যুৎ বিপর্যয় ॥ ব্যবসায়ী ও গ্রাহকদের চরম দুর্ভোগ



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥

কালবৈশাখী ঝড়, টর্নেডো, বিদ্যুৎ লাইনে ত্রুটি, মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জনবল স্বল্পতাসহ বিভিন্ন কারনে কমলগঞ্জে বার বার বিদ্যুৎ বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। ফলে সমিতির অধীনস্থ প্রায় ৪০ হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহক, ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন কারখানার মালিকরা চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। গত কয়েকদিনে টানা ঝড়ে বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটলেও রবিবার বিনা ঝড়েই বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙ্গে যাওয়ায় সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা সোয়া ৬টা (এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) কমলগঞ্জ ও কুলাউড়া উপজেলা একাংশে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কমলগঞ্জ জোনাল অফিস সূত্রে জানা যায়, এ অফিসের অধীনস্থ কমলগঞ্জ ও কুলাউড়া উপজেলা একাংশের প্রায় ৪০ হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহক রয়েছেন। পাশাপাশি ব্যবসায়ী ও চা বাগানসহ বিভিন্ন শিল্প কারখানায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। কিন্তু কয়েকদিনের টানা কালবৈশাখী ঝড়, টর্নেডো আর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির স্বল্প জনবলের কারনে প্রতিদিন দীর্ঘ সময়ে বিদ্যুৎ বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। গত বুধবার আকষ্মিক টর্নেডোয় কমলগঞ্জে প্রায় ৩০ ঘন্টা বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটে। শনিবার সকালে কালবৈশাখী ঝড়ে ফের ১৮ ঘন্টার বিপর্যয় ঘটে। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গ্রাহক সফিকুর রহমান, বিল্লাল মিয়া, আব্দুর রাজ্জাকসহ ব্যবসায়ীদের অভিযোগ জানা যায়, গত কয়েকদিন যাবত একাধারে কালবৈশাখী ঝড়, টর্নেডো ও ঝড়ো বাতাসে কমলগঞ্জ ও কুলাউড়া উপজেলা একাংশে ২০ থেকে ৩০ ঘন্টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে পড়ে। ফলে কারখানা, কম্পিউটার ব্যবসায়ী, বাসাবাড়ির লোকদের চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। কোন ঝড় ছাড়াই লাইনে ত্রুটি থাকায় রবিবার সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত (এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ফলে গ্রাহক, ব্যবসায়ীরা দুর্ভোগ ও ক্ষতি পোহাচ্ছেন বলে অভিযোগ তোলেছেন।

এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কমলগঞ্জ জোনালের ডিজিএম প্রকৌশলী এ এস এম হাসনাত হাসান বলেন, ঝড়ে কুলাউড়া এলাকায় একটি খুঁটি ভেঙ্গে পড়ায় এ সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে দ্রুত লাইন মেরামতের কাজ চলছে। বিশাল এলাকায় তুলনামুলক জনবল কম আর ঘন ঘন কালবৈশাখী ঝড়ে বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙ্গে, তার ছিড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যাওয়ায় বার বার বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটছে বলে তিনি দাবি করেন।