রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

কমলগঞ্জে টর্নেডোয় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ॥ অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত ॥ বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত ॥ আহত-৫



Pic-1
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
প্রবল বর্ষণের সাথে মাত্র ১০ মিনিট স্থায়ী টর্নেডোয় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নে বসত ঘর বিধ্বস্ত, গাছপালা ভেঙ্গে ও বৈদ্যুতিক লাইনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘরের উপর গাছ পড়ে ও টর্নেডোয় অর্ধশতাধিক বাড়িঘর  বিধ্বস্ত হয়ে মোট ৫ জন আহত হয়েছেন। বুধবার (২৯ এপ্রিল) বেলা ১২টায় এই টর্নেডো হয়।
সরেজমিন ঘুরে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, বুধবার দুপুরে ধমকা বাতাসের সাথে ভারী বৃষ্টি পাত হচ্ছিল। বেলা ১২টার দিকে আকস্মিকতভাবে টর্নেডো শুরু হয়। মাত্র ১০ মিনিট স্থায়ী এ টর্নেডোয় শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ি, হাজী মো: উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চালা উড়ে যাওয়াসহ প্রায় ৫০টি বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। শমশেরনগর চা বাগানসহ গ্রামাঞ্চলে দুই শতাধিক গাছ ভেঙ্গে পড়েছে। এছাড়া গাছ ভেঙ্গে পড়ে তার ছিড়ে ৩৩ হাজার কেভি প্রধান বিদ্যুৎ লাইনের খুঁটি ও ১১ শ কেভি  আঞ্চলিক বিদ্যুৎ লাইনের ১০টি খুঁটি ভেঙ্গে পড়েছে। এছাড়া মুন্সীবাজার ইউনিয়নের রূপসপুরস্থ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ হাই স্কুলের টিনের চালা উপড়ে যায়।

Police Fari copy
ঘটনার খবর পেয়ে বেলা ১টায় কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা, প্যানেল চেয়ারম্যান পারভীন আক্তার লিলি, ভাইস চেয়ারম্যান সিদ্দেক আলী,  শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুয়েল আহমদ ও উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান সরেজমিন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। কমলগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিক ঘর মেরামতের জন্য পুলিশ ফাঁড়িতে নগদ ৫ হাজার, মনোয়ারা বেগমকে ৫ হাজার, শমশেরনগর রেলওয়ে স্টেশন বস্তিতে ৩ হাজার, হাজী মো: উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কে ৩ হাজার, ও শিংরাউলী গ্রামে মাফিয়া বেগমকে ২ হাজার টাকার অনুদান প্রদান করা হয়।
শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুয়েল আহমদ বলেন, শমশেরনগর রেলস্টেশন সংলগ্ন লাল গোদাম এলাকায় বটগাছের বড় ডাল ভেঙ্গে ঘরের উপর পড়ে মহিলা ও শিশুসহ তিনজন আহত হয়েছেন। আবার রেল স্টেশন বস্তি এলাকায় বিধ্বস্ত ঘরের ভিতর থেকে বের হতে গিয়ে আরো দুইজন আহত হয়েছেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা  ১০ মিেিনটর টর্নেডোয় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসলে ক্ষতির পরিমাণ আরো বেশী হবে। জনপ্রতিনিধিরা মাঠ পর্যায়ে অনুসন্ধান করে সঠিক তথ্য দিলে উপজেলা ও মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত সবাইকে সহায়তার নগদ অনুদান প্রদান করা হবে।