শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইউপি নির্বাচন : কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গলে যারা বিজয়ী হলেন



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

কমলগঞ্জ উপজেলার ৯ টি ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ ৪ জন, আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী স্বতন্ত্র ২জন ও স্বতন্ত্র ৩ জন প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।
অন্যদিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের ৬ জন, আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী স্বতন্ত্র ১ জন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী – ২ জন বিজয়ী হয়েছেন।

কমলগঞ্জে বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন ১নং রহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদে ইফতেখার আহমেদ বদরুল (আওয়ামীলীগ), ২নং পতনঊষার ইউনিয়নে অলি আহমেদ খান (স্বতন্ত্র ), ৩নং মুন্সিবাজারে ইউনিয়নে নাহিদ আহমেদ তরফদার, (স্বতন্ত্র ), ৪নং শমশেরনগর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী স্বতন্ত্র জুয়েল আহমদ, ৫নং কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ প্রার্থী আব্দুল হান্নান, ৬নং আলীনগরে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী নিয়াজ মোর্শেদ রাজু, ৭নং আদমপুর ইউনিয়নে আবদাল হোসেন (স্বতন্ত্র ), ৮নং মাধবপুর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের আসীদ আলী ও ৯নং ইসলামপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সুলেমান মিয়া বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।
এদিকে ৩নং মুন্সীবাজার ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী নাহিদ আহমেদ তরফদার মাত্র ১৩ দিন প্রচারণা করে এই ইউনিয়নে চমক দেখিয়ে বিজয়ী হন।
বিচ্ছিন্ন দু’একটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সন্ধ্যায় উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের মাইজগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট গননার সময় নৌকা ও আনারস মার্কার সমর্থকদের মাঝে কেন্দ্রের বাহিরে উত্তেজনা সৃষ্টি হলে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শ্রীমঙ্গল :

শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১নং মির্জাপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মিছলু আহমদ চৌধুরী, ২নং ভূনবীর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মো. আব্দুর রশীদ, ৩নং শ্রীমঙ্গল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. দুধু মিয়া, ৪নং সিন্দুরখান ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াছিন আরাফাত রবিন, ৫ নং কালাপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রাীথী এম এ মতলিব, ৬নং আশিদ্রোন ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী রনেন্দ্র প্রসাদ বর্ধন জহর, ৭নং রাজঘাট ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী বিজয় বুনার্জী, ৮নং কালীঘাট ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী প্রানেশ গোয়ালা, ও ৯নং সাতগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের প্রার্থী দেবাশীষ দেব রাখু বেসরকারি ভাবে বিজয়ী হয়েছেন।
সরেজমিন উপজেলার বিভিন্ন ইউপি ঘুরে দেখা যায়, নারী, পুরুষ ভোটারের উপস্থিতির মধ্যে দিয়ে সকাল থেকেই উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে আসেন ভোটাররা। চা-বাগানের ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।
তীব্র শীতের কারণে শুরুতে কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের ভিড় বাড়তে থাকে। পুরুষের তুলনায় নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল বেশি।