শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চরম দুর্ভোগে জনসাধারণ- কমলগঞ্জে ভেঙ্গে পড়ছে এলজিইডি’র সড়ক



Road Pic-2

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর-তারাপাশা সড়ক ও শমশেরনগর-পীরেরবাজার সড়কটি ভেঙ্গে পড়ছে। সড়কের স্থানে স্থানে খানাখন্দ ও বড় বড় গর্ত হয়ে তৈরি হয়েছে মৃত্যুফাঁদ। বৃষ্টির সময়ে সড়কের এসব গর্তে পানি জমে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে উঠে। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহন ও স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগ বয়ে আনছে।
জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর ব্যবস্থাপনায় উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ শমশেরনগর-তারাপাশা সড়ক, শমশেরনগর থেকে কুলাউড়া উপজেলার পীরেরবাজার সড়ক, মুন্সীবাজার-পতনঊষার সড়ক সহ বিভিন্ন গ্রামীণ সড়গুলো ভেঙ্গে পড়ছে। দীর্ঘদিন ধরে সড়ক গুলোর বিভিন্ন স্থানে গর্ত হয়ে ভেঙ্গে পড়তে শুরু করেছে। সড়কের কোন সংস্কার কাজ না হওয়ায় গর্ত সমুহে তৈরি হচ্ছে মৃত্যু ফাঁদ। বৃষ্টির সময়ে এসব গর্তে পানি জমে সড়কের ভাঙ্গন আরো তীব্র হচ্ছে। দু’টি সড়কেই ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে যানবাহন সমুহ। বৃষ্টির পানি আর কাঁদায় সড়ক ভরপুর হয়ে উঠায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা এসব রাস্তা দিয়ে হেঁটে চলাচলও করতে পারছেন না। ফলে যানবাহন ও শিক্ষার্থীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। সিএনজি অটোরিক্সা চালক আব্দুল কাদির, বিল্লাল মিয়া ও স্কুল পড়–য়া ছাত্রী নিলীমা সুলতানা, উর্মি বেগম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রাস্তায় গর্ত হয়ে ছোট ছোট খাদ তৈরী হয়েছে। এইসব রাস্তা দিয়ে হেঁটেও চলা যায় না। যানবাহন নিয়ে চলাচলেও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এভাবে অত্যধিক ঝুঁকি নিয়ে চলাচলের ফলে যেকোন সময়ে দুর্ঘটনারও আশঙ্কা রয়েছে। তারা আরও বলেন, রাস্তার এই দশা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা কর্তৃপক্ষের কারো চোখে পড়ে না।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে এলজিইডি কমলগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী কিরন চন্দ্র দেবনাথ বলেন, এই দু’টি সড়কের নাম তালিকাভূক্ত করে উর্দ্ধতন অফিসে প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে খুব শীঘ্রই সড়ক দু’টির কাজ শুরু হবে।