মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আসুন দরিদ্র চা শ্রমিক সন্তান স্বপন মুন্ডার পাশে দাঁড়াই !



একজন চা শ্রমিক সন্তান স্বপন মুন্ডা। অনেক পরিশ্রম করে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৩.৫০ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। মাত্র ৬৯ টাকা দৈনিক মজুরী পেয়ে পিতা সংসার চালাচ্ছেন। অভাবে তাড়নায় এ চা শ্রমিক সন্তানটি অনেক কষ্ট করে এসএসসি পাশ করছে। কিন্তু পাশ করলে কি হবে এখন পর্যন্ত সামান্য টাকার জন্য সে কলেজে ভর্তি হতে পারেনি। 444
সব স্বপ্ন, সব আশা, সব কষ্ট, চোখের জলে মুছে যাচ্ছে। খেয়ে না খেয়ে দিন গেছে স্বপনদের সংসারের। পরনে জুটেনি নতুন কাপড়। তবুও অভাব ও দারিদ্রতা দমাতে পারেনি চা সন্তান স্বপন মুন্ডাকে। কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে থেকে সে এ বছর এসএসসি পাশ করে। তার পিতা চা শ্রমিক সুবল মুন্ডা। শুধু মাত্র ৩০০০/- (তিন হাজার) টাকার জন্য ছেলেকে আজ কলেজে ভর্তি করতে পারছেন না।

এ প্রতিনিধি মেধাবী ছেলের কথা জানতে চাইলে, মা আদরী মুন্ডা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন । চোখের পানি মুছতে মুছতে বলেন ছেলেকে জীবনে এক জোড়া নতুন জুতা কোনদিন কিনে দিতে পারিনি। অন্যের দেয়া পুরাতন চপ্পল (জুতা) ও কাপড় পরে লেখাপড়া করেছে। সে ছেলের কলেজে ভর্তির এত টাকা সংগ্রহ করবো কিভাবে? সে চিন্তায় ঘুম আসে না। অসুস্থ বাবা আক্ষেপ করে বলেন, গরীবের ঘরে স্বপনটা জন্মেছিল, ভগবান গরীবের কপালে পড়ালেখা নাই দিয়েছে, এখন অ কি করবে?   তার উত্তর কি আমাদের কারো জানা নেই? আমরা কি কেউ হাত বাড়িয়ে দিতে পারিনা স্বপন মুন্ডার দিকে। যাতে কলেজে ভর্তি হয়ে তার উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন পুরন হতে পারে।
আসুন এ চা শ্রমিক সন্তানকে আমরা সহায্যের হাত বাড়িয়ে দেই। এ সহযোগিতা সে চিরকাল মনে রাখবে। যোগাযোগ করতে পারেন (কমলকুঁড়ি ০১৭১৬-৩৬২৯৪৪)