শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Sex Cams

কমলগঞ্জে জমে উঠেছে গরুর হাট



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ।।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পশুর হাটে জমজমাট বেচাকেনা শুরু হয়েছে। তবে হাটে কোরবানির পশু আসছে কম। এ বছর কোরবানির হাটে বিদেশী গরুর আমদানি কম হওয়ায় দেশী গরুর চাহিদা বেড়ে গেছে। আর এ সুযোগে গরুর চড়া দাম হাঁকছেন ব্যবসায়ীরা। গতকাল রোববার শমশেরনগর বাজারে বিরাট হাট বসেছিল। এছাড়া মুন্সীবাজারে ভানুগাছ বাজারেও বিরাট গরু-ছাগলের হাট বসে। এসব হাটে দেশী ছাড়াও বিদেশী গরুতে ভরপুর বলে সংশ্লি¬ষ্ট বাজার ইজারাদাররা জানান। গত কিছুদিন ধরে কমলগঞ্জে বিদেশী গরু আসার হার কমে গেছে। স্বাভাবিক সময়ে যে হারে গরু কমলগঞ্জে আসত কোরবানি উপলক্ষে সে পরিমাণের গরু আসছে না। স্থানীয় খামারিরা হাটে যেসব দেশী গরু তুলছেন তার চড়া দাম হাঁকছেন। গত ২-৩ দিন গরু কিনতে অনেকেই বাজারে গেলেও অধিকাংশ ক্রেতা গরু না কিনে ফিরে যাচ্ছেন। আদমপুর গরুর বাজারে কোরবানির গরু কিনতে আসা ক্রেতা ডাঃ নুরুল ইসলাম জানান, বাজারে বিদেশী গরু কম। তবে দেশী গরু বেশি উঠলেও বিক্রেতারা অনেক বেশি দাম হাঁকছেন। এতে সাধ্যের মধ্যে কোন হিসাব মিলছে না। তিনি বলেন, গত বছর যে গরু ৩৫ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে সে গরু এ বছর ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গরুর দাম না কমলে মধ্যবিত্ত অনেক পরিবারকেই কোরবানি দিতে হিমশিম খেতে হবে। ভানুগাছ বাজারের ইজারাদার আং জলিল বলেন, চড়া দামের কারণে ক্রেতারা বৃহস্পতিবার সাপ্তাহিক গরুর হাটের দিন গরু দেখেই ফিরে গেছেন। বাজারে ওইদিন প্রচুর গরু উঠলেও তেমন বেচাকেনা হয়নি। তবে গতকাল রোববার থেকে পুরোদমে বেচাকেনা শুরু হয়েছে। এ ছাড়া হাট পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিটি হাটে আসা ক্রেতা-বিক্রেতাদের জন্য রাখা হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ঈদের আগের দিন পর্যন্ত কমলগঞ্জের ভানুগাছ, শমশেরনগর, মুন্সীবাজার ও আদমপুর বাজারে গরুর হাট বসবে।