শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ন্যায্য মজুরি, শ্রম আইন বাস্তবায়ন ও ছুটির দিনের মজুরির দাবিতে – চা শ্রমিক সংঘের সভায় তিন জেলায় স্মারকলিপির সিদ্ধান্ত



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ।।
বাংলাদেশ চা শ্রমিক সংঘের মৌলভীবাজার জেলা কমিটির উদ্যোগে বিভিন্ন চা বাগান প্রতিনিধিদের সভায় ন্যায্য মজুরি, শ্রম আইন বাস্তবায়ন ও সাপ্তাহিক ছুটির দিনের মজুরি প্রদান সহ বিভিন্ন দাবিতে সিলেট, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ জেলায় স্মারকলিপি প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। রোববার বেলা ১২ টায় কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগরস্থ সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
চা শ্রমিক সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির আহ্বায়ক রাজদেও কৈরীর সভাপতিত্বে সভায় অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের সাধারন সম্পাদক রজত বিশ্বাস, সংস্কৃতি সম্পাদক অমলেশ শর্ম্মা, ধ্রুবতারা সাংস্কৃতিক সংসদের মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি কবি শহীদ সাগ্নিক। সভায় চা শ্রমিক প্রতিনিধিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নোয়াপাড়া চা বাগান প্রতিনিধি সুভাষ কর্ম্মকার, নারায়ন নায়েক, শ্রাবন সাওতাল, রাজনগর চা বাগান প্রতিনিধি বিপ্লব মাদ্রাজী, নারায়ন গরাইন, আলীনগর চা বাগানের রূপনারায়ন কৈরী, নাগেশ্বর রবিদাস, সুনছড়া চা বাগানের সুখরাম নায়েক, দিবা বৈদ্য, লংলা চা বাগানের শিশু লাল লোহার, দেওরাছড়া চা বাগানের মল্লিক মিয়া, শমশেরনগর চা বাগানের লছমি রানী রাজভর, প্রেম নারায়ণ গোয়ালা, আপ্পামা রাজভর, গোপাল চাষা প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, ২০১৩ সালের সংশোধিত শ্রম আইনের ১০৩ (গ) ধারা মোতাবেক সকল শ্রমিকদের ছুটির দিনের মজুরি প্রদান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অথচ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক রামভজন কৈরী এ বিষয়টি চুক্তিতে থাকার অজুহাত দেখিয়ে সাধারন শ্রমিকদের ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছেন। এছাড়াও নিজের আখের গোচাতে মালিক পক্ষের স্বার্থে তিনি কাজ করে চলেছেন। চা শ্রমিকদের সাপ্তাহিক ছুটির দিনের মজুরি দাবিতে প্রত্যেক চা বাগানের শ্রমিকরা ব্যবস্থাপক বরাবরে আবেদন করার আহ্বান জানান।