শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শমশেরনগর স্টেশনে তেলের ট্যাঙ্কারবাহী ট্রেন দাঁড়োনো থাকায় ৫ ঘন্টা শমশেরনগর-মৌলভীবাজার সড়ক বন্ধ ॥ জনসাধারনের চরম দুর্ভোগ



0000[1]
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
সিলেট-আখাউড়া রেলপথের মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর স্টেশনে সকাল ৮টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত টানা ৫ ঘন্টা তেলের ট্যাঙ্কারবাহী ট্রেন দাঁড়িয়ে থাকার ফলে শমশেরনগর-মৌলভীবাজার সড়ক বন্ধ রয়েছে। ফলে  রেলপথের দুই ধারে দীর্ঘ যানজটের সৃস্টি হয়েছে। জনসাধারনের চরম দুর্ভোগের সৃস্টি হয়। রবিবার এ ঘটনাটি ঘটে।
শমশেরনগর রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা যায়, সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্রগ্রামগামী একটি তেলের ট্যাঙ্কারবাহী ট্রেন শমশেরনগর স্টেশনের দুই নম্বর লাইনে দাঁড়ায়। ২২টি বগিযুক্ত ট্রেনটি পুরো স্টেশন এলাকা ছাড়িয়ে শমশেরনগর থেকে জেলা সদর মৌলভীবাজার যাাতায়াতের প্রধান সড়কটিও বন্ধ করে রাখে। ফলে শমশেরনগর-মৌলভীবাজার সড়ক ৫ ঘন্টা যোগাযোগ বন্ধ থাকে। শমশেরনগর স্টেশন এলাকার রেল পথের দুই ধারে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয় বাস, মাউক্রোবাস ও ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকে। নারী ও স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থীদের তেলের ট্যাংকার বগির মাঝ খানের সংযুক্তি এলাকা দিয়ে রীতিমত ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করতে দেখা গেছে। শমশেরনগরের বণিক কল্যাণ সমিতির সাধারন সম্পাদক আব্দুল হান্নান ও স্কুল শিক্ষক সৌরভ চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ একটি স্টেশনে প্রধান সড়ক অবরুদ্ধ করে দীর্ঘ পাঁচ ঘন্টা একটি ট্রেন দাঁড়িয়ে থাকে তা বুঝতে পারছেন না।
শমশেরনগর স্টেশনের সহকারী মাস্টার কবির আহমদ বলেন, ট্রেনটি বেশ কিছু বগি নিয়ে চলাচল করছে। এ ট্রেনটি পার্শ্ববর্তী ভানুগাছ বা শ্রীমঙ্গল স্টেশনেও রাখার মত স্থান নেই। সিলেটগ্রামী আন্তনগর পারাবত ট্রেন শমশেরনগর স্টেশন অতিক্রম করার পর তেলের ট্যাংকারবাহী ট্রেনটি শমশেরনগর স্টেশন ছেড়ে যায়। দীর্ঘ পাঁচ ঘন্টায় শমশেরনগর দাঁড়ানোর ফলে জনদুর্ভোগের কথা রেলর নিয়ন্ত্রক(কন্ট্রোল)কেও অবহিত করা হয়েছে বলে স্টেশন মাষ্টার জানান।