শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে জুবেদা খাতুন ফাউন্ডেশন ট্রাষ্ট কর্তৃক দরিদ্র মেধাবী ছাত্রকে আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর



Pic- Santo
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে দরিদ্র মেধাবী ছাত্র শান্ত শব্দকর-কে জুবেদা খাতুন ফাউন্ডেশন ট্রাষ্টের পক্ষে ট্রাষ্টের চেয়ারম্যান, কমলগঞ্জ সমিতি ইউকের সভাপতি, এইড বাংলাদেশ কমিউনিটি ফোরামের উপদেষ্টা, শ্রীমঙ্গলস্থ শামছুল হক ছালেহা চৌধুরী রেড ক্রিসেন্ট ম্যাটারনিটি হাসপাতালের প্রধান উপদেষ্টা যুক্তরাজ্য প্রবাসী ফারুক আহমেদ ও তাঁর পারিবারিক বন্ধু ডা. প্রতিভা চক্রবর্তী কর্তৃক প্রদত্ত আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর করা হয়েছে।
২২ জুন সোমবার বেলা ১১টায় সিদ্দেশ্বরপুরস্থ ফারুক আহমেদ এর গ্রামের বাড়িতে আনুষ্ঠানিকভাবে ২১ হাজার টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবক শিক্ষানুরাগী এম, মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক, সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ট বিদ্যুৎসাহী সমাজকর্মী ও বিআরডিবির চেয়ারম্যান ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, রহিমপুর ইউপি (স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল, কমলকুঁড়ি পত্রিকার সম্পাদক পিন্টু দেবনাথ, সমাজকর্মী মোস্তাফ আহমেদ খোকন, ফেরদৌস আহমদ, মেধাবী ছাত্র শান্ত শব্দকরো পিতা পিতা ইরেশ শব্দকর, মাতা দিপালী রানী শব্দকর প্রমুখ।

3

মেধাবী ছাত্র শান্ত শব্দকর ও তার পিতা-মাতা এই সহায়তা পেয়ে জুবেদা খাতুন ফাউন্ডেশন ট্রাষ্টের চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ ও তাঁর পারিবারিক বন্ধু ডা. প্রতিভা চক্রবর্তীর প্রতি চির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
উল্লেখ্য, শান্ত শব্দকর ২০১৪ সালে এসএসসি পরীক্ষায় কমলগঞ্জ মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয় । আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে সে কলেজের ভর্তি হতে পারছিলনা। অদম্য এ মেধাবী ছাত্রকে নিয়ে বিভিন্ন পত্র পত্রিকা ও অনলাইন পত্রিকায় তার ফিচার প্রকাশিত হলে যুক্তরাজ্য প্রবাসী জুবেদা খাতুন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ এর নজর পড়লে তিনি তাঁর কলেজে ভর্তিসহ যাবতীয় সহায়তায় এগিয়ে আসেন। বর্তমানে শান্ত শব্দকর কমলগঞ্জ গণ মহাবিদ্যালয়ে এইচএসসি (দ্বাদশ) শ্রেণীতে লেখা পড়া করছে। শান্ত জানায়, আমার লেখাপড়া হয়তো বন্ধ হয়ে যেত যদি সাংবাদিক পিন্টু দেবনাথ এর মাধ্যমে যুক্তরাজ্য প্রবাসী ফারুক আহমেদ ও তাঁর পারিবারিক বন্ধু ডা. প্রতিভা চক্রবর্তী পাশে না দাঁড়াতেন। আমি এই সহায়তা পেয়ে অত্যন্ত খুশি এবং তাঁদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। দোয়া করি পরমকরুণাময়ের কাছে তাদের দীর্ঘায়ু লাভ হউক এবং এভাবে যেন অসহায় মানুষের পাশে সব সময় দাঁড়াতে পারেন।