বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে চোরাই সেগুন কাঠ উদ্ধার



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
আখাউড়া-সিলেট রুটের মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ভানুগাছ রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৬ পিছ সাইজ করা ফাইল সেগুন কাঠ উদ্ধার করা হয়েছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টার সময় কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞার নেতৃত্বে বন বিভাগ ও পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে চোরাই সেগুন কাঠগুলো উদ্ধার করেন। এ ব্যাপারে বন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, বুধবার ভোরে সাইজ করা প্রায় ৩০ পিছ ফাইল চোরাই সেগুন কাঠ ট্রেনে পাচারের জন্য চোরদল ভানুগাছ রেলওয়ে ষ্টেশন সংলগ্ন স্থানে রাখে। ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জ ইউএনও মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা ভানুগাছ রেলওয়ে ষ্টেশন মাষ্টারকে বিষয়টি অবহিত করেন। ষ্টেশন মাষ্টারের মাধ্যমে কাঠচোররা ইউএনও’র অভিযান হবে সংবাদ পেয়ে চোরাই কাঠগুলো সরিয়ে ফেলে। পাচারের জন্য ভানুগাছ রেলওয়ে ষ্টেশনে চোরাই কাঠের ব্যাপারে বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় কমলগঞ্জের রাজকান্দি রেঞ্জ কর্মকর্তার মোবাইলে বার বার ফোন দিলেও তিনি রহস্যজনক কারণে ফোন রিসিভ করেননি। পরে সকাল সাড়ে ৯টায় কমলগঞ্জ ইউএনও মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞার নেতৃত্বে পুলিশ ও বন বিভাগ বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৬ পিছ ফাইল চোরাই সেগুন কাঠ উদ্ধার করেন। উদ্ধারকৃত কাঠের পরিমাণ ১১.২৯ ঘনফুট। যার বাজার মূল্য প্রায় ৩৩ হাজার টাকা হবে। এ ব্যাপারে বন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন স্থানীয় ব্যবসায়ী জানান, রেলওয়ে কর্মকর্তাদের জ্ঞাতসারেই প্রায়ই চোরাই কাঠ পাচার হয়ে থাকে। মাঝে মধ্যে খবর পেলে প্রশাসন অভিযান চালায়। আর রাজকান্দি রেঞ্জ কর্মকর্তার কাছে চোরাই মাল পাচারের তথ্য দিলে তিনি যথাসময়ে অভিযান করেননি। যার ফলে চোরদল পার পেয়ে যায়।