মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে অগ্নিকান্ডে রিক্সাচালক পরিবারের সবকিছু পুড়ে ছাই || উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ ১০ টাকা সহায়তা



Pic---Kamalgonj U.N.O

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে অগ্নিকান্ডে দরিদ্র রিক্সাচালক পরিবারের সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আগুনে পুড়ে স্ত্রী আহত হয়েছে। প্রতিবন্ধী একমাত্র শিশুপুত্রকে নিয়ে এখন চরম অভাবে পড়েছে। নগদ টাকা, চাল, কাপড়-চোপড়, জমির দলিল পুড়ে এখন নি:স্ব হয়ে পড়ছে রিক্সাচালক পরিবারটি। সাংবাদিকদের মাধ্যমে ঘটনার খবর পেয়ে দরিদ্র রিক্সাচালক পরিবারের পাশে দাঁড়ান কমলগঞ্জের ইউএনও মাহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা । তিনি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিকভাবে দরিদ্র রিক্সাচালক পরিবারের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা প্রদান করেন।
জানা যায়, কমলগঞ্জ পৌরসভার চন্ডীপুর গ্রামে প্রাক্তন ইউপি সদস্য ছাদ আলীর বাড়িতে প্রায় ৩/৪ বছর যাবত পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছে দরিদ্র রিক্সাচালক নুরুল ইসলাম। গত শনিবার (৯ মে) রাত পৌনে ৮টায় কুপির বাতি থেকে হঠাৎ করে রিক্সাচালকের বসতঘরে আগুন লেগে যায়। আগুনের লেলিহান শিখায় মুহুর্তের মধ্যেই রিক্সাচালকের ঘরে রক্ষিত নগদ প্রায় ৭ হাজার টাকা, চাল, জমির দলিল, কাপড়-চোপড় সহ মূল্যবান জিনিসপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পর উপজেলা সদর থেকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে আসেন। অগ্নিকান্ডে রিক্সাচালক নুরুল ইসলামের স্ত্রী লুসই বিবি আহত হন। তার ৭ বছরের একমাত্র প্রতিবন্ধী শিশুপুত্র সাকিবকে বাড়ির লোকজন উদ্ধার করেন। আহত লুসই বিবিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সবকিছু হারিয়ে এখন নি:স্ব হয়ে পড়ছে দরিদ্র রিক্সাচালক পরিবারটি।
এদিকে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা রোববার বিকাল পৌনে ৬টায় তাৎক্ষনিকভাবে দরিদ্র রিক্সাচালক নুরুল ইসলামের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন এবং পরবর্তীতে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন ।