শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এসো মেধাবী ন’মৌজা গড়ি-র ব্যতিক্রমী আয়োজনে মেধা বৃত্তি পরীক্ষার পুরষ্কার বিতরণী ও গুণিজন সংবর্ধনা



Photo0187

এম এ ওয়াহিদ রুলু, শরীফপুর থেকে ফিরে
মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী শরীফপুর ইউনিয়নে কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থীদের সংগঠন “এসো মেধাবী ন’মৌজা গড়ি’-র ব্যতিক্রমী আয়োজনে এলাকার কৃতি সন্তান গুণিজনদের সাথে নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিণত হয়। প্রথমবারের মত শরীফপুর ইউনিয়নের তৃতীয় শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ৭০০ শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহনে অনুষ্ঠিত মেধা বৃত্তি পরীক্ষার পুরষ্কার বিতরণী সভায় গুনিজনদের সংবর্ধনা দেওয়া হয় ১৭ এপ্রিল শুক্রবার বিকাল পাঁচটায়। এসো মেধাবী ন’মৌজা গড়ি স্লোগানকে নিয়ে  মোঃ জুনেদ আহমদকে আহ্বায়ক ও হেসাম আহমদকে সম্পাদক করে এ নামেই গঠন করা হয় সংগঠন। ইউপি সদস্য মোঃ নসিবুর রহমানকে প্রধান পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক করে মো: জামাল উদ্দীন, সৈয়দ কামাল আহমদকে সহকারী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও শরীফপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষিকা রেহনুবা সুলতানাকে কেন্দ্র সচিব করা হয়। শরীফপুর ইউনিয়নের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় থেকে ৫ম শ্রেণির ৩৯২ জন ও তেলিবিল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ থেকে দশম (নতুন) শ্রেণির ৩০৮ জন সব মিলিয়ে ৭০০ জন শিক্ষার্থীদের এ মেধা যাচাই পরীক্ষায় অংশ নেয়।
শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কমিটির আহ্বায়াক জুনায়েদ আহমদ, আবুল হোসেন ও আইনজীবি আব্দুল্লাহ আলমগীর-এর সঞ্চালনায় সংগঠনে আন্যতম সহায়তা প্রদানকারী ইউপি সদস্য নছিবুর রহমানের সভাপতিত্বে মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে শরীফপুর ইউনিয়নের ও আমন্ত্রিত গুনিজনসহ মোট ২৬ জন গুনিজনকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। উপস্থিত নতুন প্রজন্ম শিক্ষার্থীদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় কৃতি ও গুনিজনদের। গুনিজনরা শরীফপুর ইউনিয়নের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে অনুপ্রেরণা মূলক বক্তব্য রেখে সংগঠনটির চালিকা শক্তি হিসাবে তারা (গুনিজনরা) পিছন থেকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
শরীফপুরের গুনিজনদের মাঝে উপস্থিত  ছিলেন সংবর্ধিত সাবেক যুগ্ম সচিব, মো: আব্দুস শহীদ, সাবেক পুলিশ সুপার কায়ছার আহমদ হায়দরী, অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সিদ্দেক আলী, ল্যা: কর্ণেল রাশেদ মিনহাজ সিদ্দিকী, লে: কর্ণেল শাহেদ মিনহাজ সিদ্দিকী, সিলেটের নুরজাহান মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজের ইংরেজী বিভাগের প্রধান অধ্যাপক বায়েছ আহমদ, শ্রীমঙ্গল উপজেলা হিসাব রক্ষক কর্মকর্তা এখলাছুর রহমান, মো: আব্দুল আহাদ জুয়েল ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী আব্দুল কাদের পারভেজ। অতিথি গুণিজনদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম, সাংবাদিক মুজিবুর রহমান (রঞ্জু), কমলগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি এম এ ওয়াহিদ রুলু, কলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান ও আব্দুর রাশিদ। অনুষ্ঠানে তৃতীয় থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ৭০ জন শিক্ষার্থীকে একটি সনদ ও সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। আর প্রতিটি ক্লাসের প্রথম থেকে তৃতীয় স্থান অধিকারীদের ৫০০ টাকার প্রাইজবন্ড প্রদান করা হয়।