বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে ৫দিনব্যাপী শতভূজা বাসন্তী পূজা সম্পন্ন ।। ধর্ম যার যার উৎসব সবার—-উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি



Pic---Basonti Puja---02
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি বলেছেন, ধর্মীয় মূল্যবোধ কর্মের মাধ্যমে অর্জন করতে হবে। অসামপ্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী বর্তমান মহাজোট সরকার সকল ধর্মের মানুষের সমঅধিকারে বিশ্বাসী। ধর্ম যার যার উৎসব সবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। চিফ হুইপ আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় গেলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হবে। সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়েই জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তিনি বলেন, ধর্মীয় অনুশাসন-মানুষের ধর্ম, আর মানব ধর্ম হচ্ছে সবার উর্দ্ধে। মানুষে মানুষে ভেদাভেদ ভুলে যার যার ধর্ম, সকলের উৎসব মনে করে সবাই ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। তিনি গত শনিবার (২৮ মার্চ) সন্ধ্যায় মহানবমী তিথিতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী দেবীপুর সার্বজনীন দেবালয়ে (৯ম বার্ষিকী) শতভূজা শ্রীশ্রী বাসন্তী পূজা উপলক্ষে আয়োজিত ধর্মীয় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
দেবীপুর সার্ব্বজনীন দেবালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মধু সূদন পালের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মূখ্য আলোচক ছিলেন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্টের ট্রাষ্টি রাখাল চন্দ্র ঘোষ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম, মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক, রহিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল, কমলগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ মো. আনোয়ার হোসেন, বিশিষ্ট সমাজসেবক ড. আর, কে, ধর, সাবেক ট্রাষ্টি নিহার রঞ্জন দাস, প্রবীন শিক্ষাবিদ নিহারেন্দু ভট্টাচার্য্য, বিশিষ্ট দানশীল ব্যক্তি সুভাষ চন্দ্র রায়, বিশিষ্ট সমাজসেবী সুজিত দে, বিশ্বজিত চক্রবর্তী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দেবালয় পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক সত্যেন্দ্র কুমার পাল (নান্টু), প্রধান শিক্ষক শ্যামল চন্দ্র দাশ, ডা: শ্যামসুন্দর গোস্বামী প্রমুখ।
এদিকে দেবীপুর সার্বজনীন দেবালয়ে রোববার বিকেলে স্থানীয় পুকুরে অশ্রুসিক্ত নয়নে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য্যরে মধ্য দিয়ে শতভুজা বাসন্তী দেবীর প্রতীমা বিসর্জন অনুষ্ঠিত হয়। ৫ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার হাজার হাজার লোকের পদচারনায় গোটা এলাকা মুখরিতে হয়ে উঠে।