শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এস কে সিনহা দেশের ২১ তম প্রধান বিচারপতি নিয়োগ পাওয়ায় কমলগঞ্জে আনন্দের বন্যা ॥ মিষ্টি বিতরণ



Justice_S_K_Sinha[1]
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের তিলকপুর গ্রামের কৃতি সন্তান আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠতম বিচারপতি এস কে সিনহা (সুরেন্দ্র কুমার সিন্হা)কে দেশের ২১তম প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগ পাওয়ার সংবাদে নিজ এলাকা কমলগঞ্জে মণিপুরী সম্প্রদায় সহ সর্বস্তরের লেঅকজন গর্বিত ও আনন্দিত হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন স্থানে চলছে মিষ্টি বিতরণ। আদিবাসী মণিপুরী সম্প্রদায়ের লোকজন সহ কমলগঞ্জ তথা মৌলভীবাজার জেলা জুড়ে আনন্দের বন্যা বইছে। বিচারপতির গ্রামের বাড়ি তিলকপুরে গিয়ে স্থানীয় মণিপুরী সম্প্রদায়, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক ও প্রশাসনের লোকজনের সাথে কথা বলে এই প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। কমলগঞ্জ উপজেলার তিলকপুর গ্রামের বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী সম্প্রদায়ভুক্ত ললিত মোহন সিংহ ও ধনবতী সিনহার বড় ছেলে বিচারপতি এস কে সিনহা। তাঁর বাবা ছিলেন হাইস্কুলের শিক্ষক। মা রতœগর্ভা গৃহিনী। এস কে সিনহার স্ত্রী ও দুই মেয়ে। বড় মেয়ে সুচনা সিনহা অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থান করছেন। ছোট মেয়ে ভারতে লেখাপড়া শেষে বাবার সাথে ঢাকায় অবস্থান করছেন। কয়েক বছর আগে বিচারপতির বাবা মা মারা যান। বর্তমানে তাঁর গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছেন ছোট ভাই নীলমনি সিংহ। ছোট ভাই হিসাবে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে নীলমনি সিংহ বলেন, বড় ভাই প্রধান বিচারপতি হওয়ায় খুবই আনন্দ ও গর্ব বোধ করছেন।
এ প্রসঙ্গে আলাপকালে বিচারপতি এস কে সিনহার বাল্যবন্ধু কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান কাছে অভিব্যক্তি ব্যক্ত করে জানান, বর্তমান মহাজোট সরকার অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী। বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত আদিবাসী সম্প্রদায়ের একজন যোগ্য ব্যক্তিকে প্রধান বিচারপতি নিযুক্ত করা তার সবচেয়ে বড় উদাহরণ। এস কে সিনহাকে প্রধান বিচারপতি পদে নিযুক্ত করায় মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে কমলগঞ্জ উপজেলার সর্বস্তরের জনগনের পক্ষ থেকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান বলেন, আমরা অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত হয়েছি।
নিজেকে গর্বিত দাবি করে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা বলেন, কমলগঞ্জের সন্তান এস কে সিনহা স্যার প্রধান বিচারপতি হয়েছেন এবং তাঁর এলাকায় কর্মরত থাকতে পেরে গোটা উপজেলাবাসীর জন্য সবচেয়ে বড় গৌরবের বিষয়।
বাংলাদেশ মণিপুরী আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সমরজিত সিংহ বলেন, একজন সম্মানিত ব্যক্তি হিসাবে বিচারপতি এস কে সিনহাকে সরকার তার পাওনা দিয়েছে। বাংলাদেশের প্রায় ৫০ হাজার বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী সম্প্রদায়ের এর চেয়ে বেশি কিছু আশা করা যায় না। এজন্য জাতি, ধর্ম, বর্ণ, নির্বিশেষে বর্তমান এই সরকারকে মণিপুরি সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে অভিনন্দন।
মণিপুরী ললিতকলা একাডেমীর পরিচালক রামকান্ত সিংহ অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, তিনি রাষ্ট্রীয় কার্য পরিচালনা করতে দেশের স্বার্থের প্রতি খেয়াল রাখবেন সেটিই অনুরোধ।
লেখক-গবেষক আহমদ সিরাজ বলেন, কমলগঞ্জ তথা মৌলভীবাজার জেলার ইতিহাসে প্রথম বিচারপতি হিসেবে এস কে সিনহা নিয়োগ হতে যাচ্ছেন এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত সম্মান ও গৌরবের বিষয়। বাংলাদেশের ইতিহাসে বিচারপতি এস কে সিনহা প্রথম অমুসলিম প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হলেন।
কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ বলেন, সাধারণ মণিপুরী পরিবারের সন্তান আপিল বিভাগের জেষ্ঠ্যতম বিচারপতি এস কে সিনহা দেশের ২১ তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় বৃহত্তর সিলেটবাসী আনন্দিত ও গর্বিত। বিশেষ মণিপুরী সম্প্রদায়ের লোকজন সহ সর্বস্তরের কমলগঞ্জবাসী আজ আনন্দে আতœহারা।
কমলগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি রনেন্দ্র কুমার দেব বলেন, কমলগঞ্জের কৃতি সন্তান প্রধান বিচারপতি হওয়ায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত হয়েছি।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের তিলকপুর গ্রামের কৃতি সন্তান প্রয়াত ললিত মোহন সিনহা ও মা ধনবতী সিনহার পুত্র বিচারপতি এস কে সিনহা (সুরেন্দ্র কুমার সিনহা) প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন এই সংবাদে জনগণের মাঝে আনন্দের বন্যা বইছে। এস কে সিনহা প্রধান বিচারপতি হওয়ার সংবাদে অনেক স্থানে মিষ্টি বিতরণ ছাড়া একে অপরকে ফোন করে আনন্দের সে খবরটিকে ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন।
উলে¬খ্য, ত্রয়োদশ সংশোধনীর মাধ্যমে আনা তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা আপিল বিভাগের যে বেঞ্চ বাতিল করেছিল এস কে সিনহা ছিলেন তার অন্যতম সদস্য। বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার দেয়া গুরুত্বপূর্ণ রায়গুলো হলো বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায়, সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনী বতিলের রায়, যুদ্ধাপরাধ মামলা ইত্যাদি। মানবতা বিরোধী অপরাধে কাদের মোল¬ার ফাঁসির রায় কার্যকরের সিদ্ধান্তের পর সারা দেশে সহিংসতার অংশ হিসাবে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার কমলগঞ্জের গ্রামের বাড়িতে ২০১৩ সালের ১০ ডিসেম্বর ভোর সাড়ে ৫টায় দুবৃত্তরা এস কে সিনহার গ্রামের বাড়ি তিলকপুরে তিনটি মোটরসাইকলে ও একটি অটোরকিশায় এসে পেট্রোল ছিটিয়ে তার ঘরের বারান্দায় আগুন দিয়েছিল। এ ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত তাঁর বাড়িতে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।