শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে আন্তঃ মণিপুরি যুব ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ও সংগীত সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ভানুবিল গ্রামে বাংলাদেশ মণিপুরি যুব কল্যাণ সমিতি ভানুবিল শাখার আয়োজনে বাংলাদেশের মণিপুরীদের সর্ববৃহৎ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা (১৩ জানুয়ারী) শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩ টা শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়।
জাতীয় পতাকা ও সংগঠনের ১৩ টি শাখা কমিটির পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে ১৫ তম আন্তঃ মণিপুরী
যুব ক্রীড়া প্রতিযোগিতার প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করেন অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ এমপি। খেলা পরিচালনা কমিটির সভাপতি রামচন্দ্র শর্ম্মা’র সভাপতিত্বে ও বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মসন সিনহার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দিন, কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জুয়েল আহমদ, কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সঞ্জয় চক্রবর্তী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি এম, মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক, আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন, ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান সুলেমান মিয়া, আলীনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নিয়াজ মোর্শেদ রাজু, মণিপুরী সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আনন্দ মোহন সিংহ, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোঃ ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল
মণিপুরী যুব কল্যাণ সমিতির সভাপতি প্রদীপ কুমার সিংহ প্রমুখ । এছাড়াও বক্তব্য গ্রামের সন্তান যশোর ডেপুটি কমিশনার কাস্টমস রবীন্দ্র সিংহ, শ্যাম সিংহ, আব্দুল কাদির প্রমুখ।
মণিপুরী জনগোষ্ঠীর একটি সর্ববৃহৎ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আসর। বাংলাদেশে বসবাসরত বিভিন্ন অঞ্চলের খেলোয়াড়রা মণিপুরী যুব কল্যাণ সমিতির ১৩ টি শাখা সংগঠনে মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। প্রতি দুই বছর পর এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা যুব কল্যাণ সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির অনুমোদন ক্রমে বিভিন্ন গ্রামে অনুষ্ঠিত হয় থাকে। প্রথম বারের মতো ভানুবিল গ্রামে বৃহৎ এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে । বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক হাজার লোক সমাগমে উৎসব মুখর হয়ে উঠে এই ক্রীড়া আসর।
৯ দিনব্যাপি এই ক্রীড়া প্রতিযোগিতা রয়েছে ফুটবল,ক্রিকেট, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন, দাবা,তীরন্দাজ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধরণের মণিপুরী সাংস্কৃতিক পরিবেশনা নৃত্য ও গান এছাড়া ঢাকা থেকে আমন্ত্রিত সংগীত শিল্পী আশিক সংগীত পরিবেশন করেন।