শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে উদ্ধার হওয়া ৪ কেজি ওজনের গুইসাপ লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত



Pic---Guisap01
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার শ্রীনাথপুর গ্রামের আলতা মিয়ার বাড়ি থেকে ৪ কেজি ওজনের উদ্ধার হওয়া গুইসাপ লাউয়াছড়ায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টায় লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের বাঘামারা লেকে গুইসাপটি অবমুক্ত করেন উপজেলা নির্বাহী কমকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা। বিশাল দেহের এই গুইসাপটি দেখতে শ্রীনাথপুর এলাকায় উৎসুক লোকজন ভিড় করেন।
জানা যায়, কমলগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের শ্রীনাথপুর গ্রামের আলমাছ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা পারভীন সুলতানার বাড়ি থেকে একই গ্রামের আলতা মিয়া প্রায় ৪ ফুট দৈর্ঘ্যরে ও ৪ কেজি ওজনের একটি বড় আকারের গুইসাপ ধরে নিজের নিয়ন্ত্রণে রেখে দেন। এ ঘটনার খবর পেয়ে বিকাল চার ঘটিকায় কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা ও লাউয়াছড়া বনবিট কর্মকর্তা (বন্যপ্রাণী) মনিরুল ইসলাম আলতা মিয়ার নিয়ন্ত্রণ থেকে ধৃত গুই সাপটি উদ্ধার করেন। পরে মাছের জ্বালে করে এনে বিকাল সাড়ে ৫টায় কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা এই গুইসাপটি লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের বাঘমারা লেকে অবমুক্ত করেন। এ সময় উপজেলা মৎস্য অফিসার, লাউয়াছড়া বনবিট কর্মকর্তা (বন্যপ্রাণী) মনিরুল ইসলাম, সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সি/এ মৃনাল কান্তি দাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধৃত গুইসাপটি নিয়ে শ্রীনাথপুর গ্রামে রীতিমত বড় ধরনের লোক জমায়েত হয়েছিল সেটিকে দেখার জন্য। আবার সুযোগ সন্ধানী প্রতারকরাও ধৃত গুই সাপটি পাচার করার পাঁয়তারা করছিল। তাই তিনি সরেজমিন গিয়ে বনবিট কর্মকর্তার কাছে সেটিকে হস্তান্তর করে বিকালে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের বাঘমারা ষ্টুডেন্ট ডরমেটরী সংলগ্ন লেকে অবমুক্ত করেন।
লাউয়াছড়া বনবিট কর্মকর্তা (বন্যপ্রাণী) মনিরুল ইসলাম জানান, উদ্ধার হওয়া গুইসাপটির দৈর্ঘ্য প্রায় ৪ ফুট ও ওজন ৪ কেজি হবে বলে জানান। এটি জলাশয় থেকে এসেছে।