বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শাল্লায় হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা, লুটপাট ও মন্দির ভাংচুরের প্রতিবাদে কমলগঞ্জে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল



কমলকু্ঁড়ি রিপোর্ট

সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে হামলা, লুটপাট ও মন্দির ভাংচুেরর ঘটনার প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার বেলা ১১টার দিকে কমলগঞ্জ উপজেলা চৌমুহনী চত্বর এলাকায় বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, মহিলা ঐক্য পরিষদ ও তরুণ সনাতনী সংঘ (টিএসএস) এর ব্যানারে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি জিডিশন প্রধান সুচিয়াং এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন দেব ও সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথের যৌথ সঞ্চালনায় এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিস বেগম, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সত্যেন্দ্র কুমার পাল, কৃষ্ণ কুমার সিংহ, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর লাল সাহা, সাধারণ সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র দাশ, বীর মুক্তিযোদ্ধাউপজেলা মহিলা ঐক্য পরিষদের সভাপতি মুন্না রায়, উপজেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক শাব্বির এলাহী, সাংবাদিক শাহীন আহমেদ, উপজেলা জাতীয় হিন্দু মহাজোট সভাপতি অঞ্জন প্রসাদ রায় চৌধুরী, চা শ্রমিক নেত্রী গীতা রানী কানু, তরুণ সনাতনী সংঘ (টিএসএস) এর সাবেক সভাপতি অপু রায় পার্থ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রিপন চক্রবর্তী, পাহাড় রক্ষা উন্নয়ন সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল এস পলাশ, সুনীল কুমার মৃধা, কালীপদ দেব, রঞ্জিত অধিকারী প্রমুখ।


সভায় বক্তারা বলেন, ‘আমরা এক দেশের নাগরিক। আমাদের ধর্ম আলাদা হতে পারে। কিন্তু, রাষ্ট্র আমাদের সবার। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে বিদেশি অতিথিদের কাছে আমাদের দেশ ও দেশের ভাবমূর্তিকে ছোট করতে একটি কুচক্রী মহল সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে সংখ্যালঘুদের ওপর বর্বরোচিত হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছে।

সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত-ভাবে এ হামলা চালানো হয়েছে।’
হামলার সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে যথাযথ শাস্তির দাবি জানানো হয় মানববন্ধন থেকে।