বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে দলই চা বাগানে শ্রমিকদের আবার কর্মবিরতি



কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
দলই চা বাগানের বিতর্কিত ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলাম পুনরায় দায়িত্ব নেয়ার পায়তারা করলে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মাধবপুর ইউনিয়নে ব্যক্তি মালিকাধীন দলই চা বাগানের শ্রমিকরা প্রতিবাদ জানায়। শুক্রবার (৫ মার্চ) সকাল ৯টা থেকে সকাল সাড়ে ১১টা পর্যন্ত দলই চা বাগানের শ্রমিকরা চা বাগান অফিসের সামনে অবস্থান নিয়ে কর্মবিরতি পালন করে।
কর্মবিরতি পালনকারী চা-শ্রমিকরা জানান, চা বাগানের ছয়াদানকারী গাছ চুরি থেকে নানা অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলামের ওপর। এসব অভিযোগের পর গত বছর চাবাগানে শ্রমিকরা প্রতিবাদ জানায়। এক পর্যায়ে গত বছর ২৭ জুলাই সন্ধ্যায় আকস্মিকভাবে চা বাগান অফিসে নোটিশ টাঙ্গিয়ে কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য দলই চা বাগান বন্ধ ঘোষণা করে। দীর্ঘ ৩৯ দিন বাগান বন্ধ থাকার পর গত বছর ৬ সেপ্টেম্বর উপজেলা প্রশাসন, চা-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ, শ্রম অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও মালিকপক্ষের যৌথ বৈঠকের পর বাগান চালু করা হয় এবং শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন। গত কয়েকদিন ধরে পূর্বের ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলামের অনুসারীরা গুঞ্জন শুরু করে সাবেক ব্যবস্থাপক আবার চা-বাগানে আসবে। এবিষয়ে গত ৪ দিন আগে বর্তমান ব্যবস্থাপকের কাছে দাবি জানানোর পরও কোন সাড়া না পেয়ে দলই চা-বাগানের শ্রমিকরা আজ শুক্রবার আড়াই ঘন্টা কর্মবিরতি পালন করে।
দলই চা বাগান পঞ্চায়েত সম্পাদক সেতু রায়সহ শ্রমিকরা জানান, বিতর্কিত এই ব্যবস্থাপকের কারণে চা শ্রমিক ও বাগানের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। তিনি আবার দায়িত্বে ফিরতে চাইলে শ্রমিকরা ক্ষুব্দ হয়ে উঠেন।
চা শ্রমিকদের কর্মবিরতি বিষয়ে দলই চা-বাগানের বর্তমানে দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেন, ‘দীর্ঘ ৫ মাস আমি বাগানে ছিলাম না। এতদিন শ্রমিকরা ঠিকমতো বাগানে কাজ করেছে। হঠাৎ গুঞ্জন উঠেছে কি, এ বিষয়ে আমার জানা নেই।’ বিষয়টি তিনি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবেন।