শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে দৃর্বৃত্তরা কৃষকের সৃজিত ফলসহ শতাধিক লেবু গাছ উপড়ে ফেলে




কমলকুঁড়ি রিপোর্ট 
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের পাত্রখোলা এলাকায় কৃষকের সৃজিত ফলসহ ১০০ লেবু গাছ উপড়ে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। রোববার (২০ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে পাত্রখোলা চা বাগান সংলগ্ন বনগাঁও গ্রামের ধলাই নদীর তীরে এ ঘটনাটি ঘটে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আদমপুর ইউনিয়নের প্রয়াত সাবেক ইউপি সদস্য ইউসুফ আলীর ছেলে কৃষক ইদ্রিছ আলী পাত্রখোলা চা বাগানের স্বপন মুন্ডাসহ কয়েকজনের কাছ থেকে ৯০ শতক জমি বর্গা নিয়ে ৫ মাস পূর্বে সে জমিতে আলু ও সবজির সাথে সমন্বিতভাবে ৫ শতাধিক লেবু গাছের চারা রোপণ করেছিলেন। লেবু গাছের চারা রোপন করে নিয়মিত পরিচর্যা ও পানি সেচ দেবার পর সবগুলো লেবু গাছে ফলন আসে। রোববার রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তরা এ লেবু বাগানের সৃজিত ফলসহ শতাধিক লেবু গাছ উপড়ে ফেলে দেয়।
কৃষক ইদ্রিছ আলী বলেন, তার বাড়ি আদমপুর ইউনিয়নে হলেও তিনি মাধবপুর ইউনিয়নের পাত্রখোলা চা বাগান সংলগ্ন ধলাই নদীর তীরের কয়েকজন চা শ্রমিকসহ স্থানীয়দের কাছ থেকে বন্দোবস্ত নেওয়া প্রায় এক একর জমিতে আলু ও সবজির সাথে সমন্বিতভাবে ৫০০ লেবু গাছের চারা রোপন করেছিলেন ৫ মাস আগে। তিনি আদমপুর থেকে এসে নিয়মিত এ লেবু বাগান তদারকি করতেন। সোমবার সকালে তদারকির জন্য লেবু বাগানে এসে দেখেন বাগানের ফলসহ শতাধিক লেবু গাছ উপড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে। ফলে তার কমপক্ষে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে। বিষয়টি তিনি আদমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন ও উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মিলন কুমার সিংহকে অবহিত করেছেন।
আদমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ইদ্রিছ আলী তাকে জানিয়েছেন। প্রাথমিকভাবে এ ঘটনার জন্য থানায় সাধারণ ডায়েরী করতে তাকে বলেছেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মিলন কুমার সিংহ বলেন, সরেজমিন পরিদর্শণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।
কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্তক্রমে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।