বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিলেটের কন্দর্পময় মজুমদারের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ



 

মতি লাল দেব রায়
সিলেট শহরের সুনামগঞ্জ সড়কের সুবিদবাজারের পরের ছোট শহরতলি পাঠানটুলা থেকে ডান দিকে ছোট গলি পথ দিয়ে একটু দূর হেটে গেলেই তারাপুর চা বাগান, যে বাগানটি একটি দেবত্তর চা বাগান যাহার সেবায়িত ছিলেন স্বর্গীয় রাজেন্দ্র লাল গুপ্ত, সেই চা বাগানে দখলদার পাকিস্থানি সেনা বাহিনী ১৯৭১ সালের এপ্রিল মাসে প্রথম সপ্তাহে বাগানে প্রবেশ করে একটি খোলা ট্রাকের মধ্যে তুলে স্বর্গীয় রাজেন্দ্র লাল গুপ্ত, তাহাঁর ছোট ভাই, স্বর্গীয় রাধা লাল গুপ্ত তাহাঁর একমাত্র ছেলে ঝুনটু গুপ্ত, বড় ছেলে পান্না লাল গুপ্ত, দ্মিতীয় ছেলে মতি লাল গুপ্ত, বাগানের ডাক্তার বাবু ক্ষিতীশ চন্দ্র দে, টিলা বাবু নরেশ দেব, পাচক,মন্দিরের ঠাকুর সহ অনেক শ্রমিকদের কে শালুটিকর বিমান বন্দরে নিয়ে তাদের পিকচার তুলে বহির্বিশ্বে দেখাবে বাংলাদেশে হিন্দুদের নির্যাতন করা হচ্ছে না, এই বলে নর পিচাসরা বিশ্বাস ঘাতকতা করে নিয়ে গিয়ে লাইন ধরে তাদেরকে নির্মম ভাবে হত্যা করে, সেদিন কার ঘটনার একমাত্র সাক্ষি, সিলেট শহরের করের পাড়া নিবাসী শ্রদ্বেয় কন্দর্পময় মজুমদার গতকাল ৮ ই সেপ্টেম্বর ২০২০ রাত ৭ ঘটিকায় রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে ভেনটিলেশনে থাকা অবস্থায় শেষ নিস্বাস ত্যাগ করেন । তিনি দীর্ঘ দিন যাবৎ বার্ধক্য জনিত রোগে ভোগছিলেন। তিনি একজন সহজ সরল সদালাপী ও পরোপকারী সমাজ কর্মী ছিলেন, তিনি মৃত্যু কালে ৪ ছেলে ১ মেয়ে ও তাহাঁর স্ত্রী সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গিয়েছেন । তাহাঁর মৃত্যুতে সিলেটের সনাতন ধর্মাবলম্বী ও সতসঙ্ঘের অপুরনিয় ক্ষতি হল । তিনি কমল গঞ্জ উপজেলার নইনারপার নিবাসী সমনভাগ চা বাগানের প্রাক্তন গুদাম বাবু প্রয়াত শ্রদ্বেয় নগেদ্র কুমার দেব রায় এর জামাতা এবং কমগঞ্জের কমিউনিটি একটিভিসট মতি লাল দেব রায়ের ভগ্নিপতি ।তাহাঁর এই চলে যাওয়াতে আমরা গভীর মর্মাহত হই, তাহাঁর বিদেহী আত্মার চীর শান্তি কামনা করি এবং পরিবারের সকল সদস্যদের এই শোক কাটিয়ে উঠার শক্তি দান করার জন্য ভগবানের কাছে পার্থনা করি ।